প্রধানমন্ত্রী কি উজাড় করে দিতেই দিল্লি গেছেন?

বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, বাংলাদেশের নিরাপত্তাব্যবস্থাকে উজাড় করে দেওয়ার বিনিময়ে বাংলাদেশের প্রাপ্তির খাতা শূন্য।

আজ সোমবার দুপুরে রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ ব্রিফিংয়ে রুহুল কবির রিজভী এ কথা বলেন।
‘তিস্তার পানি ছিনিয়ে নিতে দেব না’—গত রোববার পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের একটি বক্তব্যের উল্লেখ করে রিজভী বলেন, এ ধরনের বক্তব্যে এটি পরিষ্কার যে তিস্তা চুক্তি আলোর মুখ দেখছে না। তাহলে কি প্রধানমন্ত্রী শুধু বাংলাদেশকে ভারতের কাছে উজাড় করে দিতেই দিল্লি গেছেন? এ জন্যই কি ভারতের প্রধানমন্ত্রী প্রটোকল ভেঙে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীকে অভ্যর্থনা জানাতে দিল্লি বিমানবন্দরে গিয়েছিলেন?
রুহুল কবির রিজভী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভারত সফরে জনমত উপেক্ষা করে প্রতিরক্ষাসহ ৩৬টি চুক্তি ও সমঝোতা স্মারক সই করেছেন। এসব চুক্তি ও সমঝোতা স্মারকে স্বাক্ষরের বিষয়ে জনগণ কিছুই জানে না। না জানিয়ে অন্য দেশের সঙ্গে চুক্তি নিশ্চয়ই অশুভ উদ্দেশ্যে করা হয়। তিনি মানুষের উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা দূর করতে অবিলম্বে ভারতের সঙ্গে করা সব চুক্তি জনসম্মুখে প্রকাশের জোর দাবি জানান।
সংবাদ সম্মেলনে রুহুল কবির বলেন, ১৬ এপ্রিল ফরিদপুরের মধুখালী উপজেলায় চারটি ইউনিয়ন পরিষদে নির্বাচন হবে। সেখানে আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা ভোটারদের ভয়ভীতি দেখানোসহ সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড চালিয়ে যাচ্ছে। এমনকি পুলিশের ওসিও আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীর পক্ষে ভোট চেয়ে বেড়াচ্ছেন। সরকারি সন্ত্রাস মোকাবিলা করে সুষ্ঠু নির্বাচন করতে ব্যর্থ হলে বর্তমান সিইসি ঠুঁটো জগন্নাথ হিসেবেই গণ্য হবেন।

আপনার মন্তব্য দিন

আপনার ই-মেইল এড্রেস প্রকাশ হবে না। Required fields are marked *