বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্র হতে অপমান হয়ে ফিরে গেলেন শাবনূর

সাংস্কৃতিক প্রতিবেদকঃ টানা বৃষ্টিতে নগরবাসী যখন পানিবন্দী, রাস্তায় যানযট তীব্র, ভোগান্তি সীমাহীন; তার মাঝেই সোমবার রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে হয়ে গেল ‘জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার ২০১৫’। সন্ধ্যায় পুরস্কার বিজয়ীরা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাত থেকে পদক গ্রহণ করেছেন। অনুষ্ঠানে আজীবন সম্মাননা প্রাপ্ত অভিনেত্রী শাবানার কান্না, আবেগঘন বক্তব্য অনুষ্ঠানজুড়ে মুগ্ধতা ছড়ালেও আরেক অভিনেত্রী শাবনূরের খোঁজ করছিলেন অনেকে। শেষ পর্যন্ত অনুষ্ঠানস্থলের কোথাও পাওয়া যায়নি তাকে।
কারণ যানজটের কারণে চলচ্চিত্রবিষয়ক সর্বোচ্চ সম্মাননা ‘জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার-২০১৫’ অনুষ্ঠানের মূল ফটক থেকে ফিরে যেতে হয়েছে জনপ্রিয় এই নায়িকাকে!

অনুষ্ঠানস্থলে দেরিতে উপস্থিত হওয়াতে তার প্রবেশে বাধা দেয় নিরাপত্তারক্ষীরা। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রবেশের পর শাবনূর সম্মেলনকেন্দ্রে উপস্থিত হন। তাই নিরাপত্তারক্ষীরা আর প্রবেশ করতে দেননি। জাতীয় এ পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানটি সোমবার বিকেলে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত হয়।

এ দিকে শাবনূরের দেরিতে পৌঁছার কারণ ছিল যানজট। শুধু শাবনূরই নন, একই কারণে পরিচালক শামীম আরা নিপাসহ অনেক শিল্পী-কলাকুশলী-সাংবাদিকেরাও নির্দিষ্ট সময়ের আগে পৌঁছতে ব্যর্থ হয়েছিলেন। আর নিয়ম অনুযায়ী প্রধানমন্ত্রী অনুষ্ঠানস্থলে পৌঁছানোর পর কোনো অতিথিকে ভেতরে প্রবেশ করতে দেয়া হয় না। তবে শাবনূর নিজেই নিরাপত্তা কর্মকর্তাদের কাছে দুঃখ প্রকাশ করেছেন। উপস্থিত একাধিক অতিথি বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। শাবনূর সেখানে বলেন, ‘আসলে প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তাই সবার আগে। এটাই হওয়া উচিত। রাস্তায় যানজট থাকায় দেরি হয়ে গেছে। বিষয়টি নিয়ে আমি বিব্রত। কারণ, প্রধানমন্ত্রীর আগেই আমাদের পৌঁছানো উচিত ছিল। আমরা তো উনার চেয়ে গুরুত্বপূর্ণ কিংবা ব্যস্ত নই।’ এরপর তিনি এবং আরো কয়েকজন আমন্ত্রিত অতিথি অনুষ্ঠানস্থল ত্যাগ করেন।

উল্লেখ্য, ২৪ জুলাই বিকেল সাড়ে ৪টায় এ পুরস্কার আসর শুরু হয়। এবার আজীবন সম্মাননা যৌথভাবে পান অভিনেত্রী শাবানা ও সঙ্গীতশিল্পী ফেরদৌসী রহমান।
আসরে সেরা চলচ্চিত্রের পুরস্কারসহ সর্বাধিক ৯টি বিভাগ জয়লাভ করেছে ‘বাপজানের বায়োস্কোপ’। ২০১৫ সালে বাংলাদেশের চলচ্চিত্র শিল্পে গৌরবোজ্জ্বল ও অসাধারণ অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ ২৫টি বিভাগে শিল্পী ও কলাকুশলীদের মধ্যে পুরস্কার প্রদান করা হয়।

আপনার মন্তব্য দিন

আপনার ই-মেইল এড্রেস প্রকাশ হবে না। Required fields are marked *