সাবেক স্ত্রীর অভিযোগের জবাব দিলেন হাবিব ওয়াহিদ

এসএম নিউজ ডেস্কঃ এটাকে খ্যাতির বিড়ম্বনা বলা যাবে না। যা ঘটেছে, বা ঘটছে সবটুকুই কণ্ঠশিল্পী হাবিব ওয়াহিদ ও তার সাবেক স্ত্রী রেহান চৌধুরীর কর্মফল। মাঝখানে অন্য দুজন মেয়ের নাম প্রকাশ্যে কেন জড়ানো হচ্ছে, তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন কেউ কেউ। হাবিককে তার স্ত্রী রেহান চৌধুরী ডিভোর্স দিয়েছেন চলতি বছরের ১৯ জানুয়ারি। তখন বিষয়টিকে বেশ সহজভাবেই মেনে নিয়েছিলেন হাবিব। এতদিন পর এসে সেই ঘটনা নতুন করে মাথাচাড়া দিয়েছে সম্প্রতি হাবিবের স্ত্রীর একটি ফেসবুক স্ট্যাটাসের পর। তিনি লিখেছেন, ‘পিয়া বিপাশা আমাকে হার্ট করেছিলে। দেখো, বছর হয়নি, দুইবার তোমার নাম আসলো তোমার নষ্ট কুকর্ম নিয়ে। এখন তানজিন তিশা তোমার পালা। আসবে ভেরি সুন।’ এ স্ট্যাটাসের পর রেহান সংবাদমাধ্যমে আরো অভিযোগ করেন, ‘ডিভোর্সের আগে থেকে হাবিবের সাথে তানজিন তিশার যোগাযোগ। হাবিবের গানের মডেল ছিল তিশা। তার পক্ষ নিয়ে হাবিব আমার সাথে অনেক ঝগড়া করেছে। বলতে লজ্জা নেই, তারা লিভটুগেদার করত। কেউ কেউ তো এটাও বলছে, তারা নাকি বিয়ে করেছে।’ হাবিব ওয়াহিদ এখন আছেন অস্ট্রেলিয়ার সিডনিতে। শনিবার রাতে তিনি ফেসবুকে লিখেছেন, ‘তানজিন তিশার কারণে আমার সাথে রেহানের ডিভোর্স হয়, কথাটি ঠিক নয়। কারণ এক হাতে তালি বাজে না। তানজিন তিশার সাথে আমার কী সম্পর্ক, সেটা একান্তই আমার ব্যক্তিগত বিষয়।’ তিনি আরো লিখেছেন, ‘ডিভোর্সের কয়েক মাস পর এসব কথা কেন রেহান বলল, এটা আমার কাছে আশ্চর্যজনক মনে হচ্ছে। কারণ যাই হোক না কেন, আমি তো জোর করে ডিভোর্স দিতে বলিনি তাকে। যা হয়েছে, সমঝোতার মাধ্যমেই হয়েছে। তাহলে এখন এত কাদা ছোড়াছুড়ি কেন? এসব করে কারো কোনো লাভ দেখি না।’ এদিকে রেহানের সাথে ডিভোর্সের পর গত জানুয়ারি মাসে হাবিব বলেছিলেন, ‘দুজন মানুষের সম্পর্কে টানাপড়েনের ঘটনা নতুন কিছু নয়। আমাদের ক্ষেত্রেও এর ব্যতিক্রম হয়নি। গত পাঁচ বছর আমরা একসাথে ছিলাম। একটা সময় এসে আস্তে আস্তে বুঝতে পারি, দুজনের লাইফস্টাইল ভিন্ন। একপর্যায়ে আমরা দুজনই উপলব্ধি করি, আলাদা হয়ে যাওয়াটাই শান্তিপূর্ণ জীবনের জন্য উত্তম সমাধান। বিষয়টি আমাদের জন্য দুঃখজনক, দুর্ভাগ্যজনক।’
তখন তিনি আরো বলেছিলেন, ‘এটা আমাদের দুজনের একান্তই ব্যক্তিগত ব্যাপার। বিষয়টি আমার আর রেহানের মধ্যেই থাকুক। দেখুন, দুজন মানুষের মধ্যে কিছু কিছু বিষয়ে ভালোলাগা, ভালোবাসা কাজ করে। আবার কিছু বিষয়ের সমাধান হয় না। তেমন কিছুই আমাদের মধ্যে হয়েছে। এ কারণে আলাদা হয়ে গেছি। তবে আমাদের সন্তানের ভবিষ্যতের কথা বিবেচনা করে, তার মানসিক বিকাশের কথা সর্বাধিক গুরুত্ব দিয়ে আমি চাইব, সব সময় আমার আর রেহানের মধ্যে সম্মানজনক ও বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক বজায় থাকুক।’
তবে রেহান চৌধুরীর অভিযোগের ব্যাপারে ছোটপর্দার তারকা তানজিন তিশার কাছ থেকে কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি। ২০১১ সালের ১৩ অক্টোবর চট্টগ্রামের মেয়ে রেহান চৌধুরীকে বিয়ে করেন হাবিব ওয়াহিদ। আর তাদের বিয়েটা হয়েছিল হাবিবের মা রোখসানা ওয়াহিদের পছন্দে। ২০১২ সালের ২৪ ডিসেম্বর ছেলের বাবা হন হাবিব। তাদের ছেলের নাম আলিম।

আপনার মন্তব্য দিন

আপনার ই-মেইল এড্রেস প্রকাশ হবে না। Required fields are marked *